Skip to main content

১০টি হাতি , ২০০ পুলিশ বাহিনী নিয়ে রজনীখালে উচ্ছেদ অভিযান

১০টি হাতি , ২০০ পুলিশ বাহিনী নিয়ে রজনীখালে উচ্ছেদ অভিযান

বনবিভাগের উচ্ছেদ অভিযানের মুহূর্ত । ছবি : নিজস্ব

গুড়িয়ে দেওয়া হলাে অবৈধভাবে বসবাসকারীদের বাড়ি ঘর 

শিলচর , ৭ জুন : গত কয়েক দিন ধরে চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা ধলাই রজনীখালের সংরিক্ষত বনাঞ্চলে শুক্রবার উচ্ছেদ অভিযান চালালাে বন বিভাগ । দশটি হাতি সহ বিশাল পুলিশ ও সিআরপিএফ বাহিনী নিয়ে বরাক উপত্যকায় প্রথম এতবড় উচ্ছেদ অভিযান চালালাে বনবিভাগ । গুড়িয়ে দেওয়া হলাে সংরিক্ষত বনাঞ্চলের ২৬০ বিঘা জমি দখল করে অবৈধভাবে বসবাসকারী ৮২ টি পরিবারের বাড়ি ঘর । প্রায় পাঁচশাে মানুষের বসবাস রজনীখাল এলাকাকে দখল মুক্ত করতে গত কয়েকদিন ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছিল বন বিভাগ । শুক্রবার সকাল ন ' টায় প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয় । যে কোনও পরিস্থিতি মােকাবিলা করতে বনবিভাগের ১২০ জন কর্মীর পাশাপাশি পুলিশ ও

সিআরপিএফের প্রায় দুইশাে জওয়ান এই প্রশাসনের তরফে ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ অভিযানে শামিল হন । আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে সুপার জগদীশ দাস ও ডেপুটি পুলিশ সুপার জেলা প্রশাসনের তরফে উপস্থিত ছিলেন এজে কলিতা । জেলা বন আধিকারিক এস অতিরিক্ত জেলাশাসক রাজীব রায় । পুলিশ চৌধুরীর নেতৃত্বে ১০ টি হাতি বন কর্মীরা

ভারি বৃষ্টির মধ্যে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেন । গাছপালা সহ ঘরগুলাে একে একে ওঁড়িয়ে দেওয়া হয় । চোখের সামনে নিজেদের ঘর বাড়ি গুঁড়িয়ে দিলেও বিশাল পুলিশ ও সিআরপিএফ বাহিনীর সামনে প্রতিবাদ করার দুঃসাহস দেখাননি অবৈধভাবে বসবাসকারীরা । বহু বছর ধরে বসবাস করে আসা নিজেদের আস্তানা হারিয়ে যাওয়ায় খেটে খাওয়া এই পরিবারগুলাে আসবাবপত্র নিয়ে অজানা ঠিকানার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন । অবৈধভাবে বসবাসকারীদের উচ্ছেদ করলেও এই এলাকায় বহু বছর ধরে বসবাসকারীরা নিয়মিত সরকারি সুযােগ সুবিধা পাওয়া নিয়েও নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে । মাস তিনেক আগে একাধিক ট্রান্সফর্মার বসিয়ে দীনদয়াল বিদ্যুৎ যােজনার ' এরপর নয়ের পাতায়

১০টি হাতি , ২০০ পুলিশ বাহিনী 


বন বিভাগের অভিযানে প্রশিক্ষিত হাতি 

মাধ্যমে বিদ্যুত সংযােগও দেওয়া হয়েছে । অবৈধভাবে বসবাস করে কিভাবে সরকারি সুযােগ সুবিধা পেয়েছেন রজনীখালবাসী এই প্রশ্ন এখন ঘুরপাক খাচ্ছে । এদিনের অভিযানে ধলাইর বন আধিকারিক মজিবুর রহমান চৌধুরী , ধলাই থানার ওসি ভার্গব বরা প্রমুখ ছিলেন । উল্লেখ্য , গত বছর ধলাই পানিভরার অটোচালক রূপম পালকে অপহরণ করে খুন করে রজনীখাল এলাকার কিছু দুষ্কৃতী । এই ঘটনার পর ধলাই এলাকায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হলে রজনীখাল এলাকায় অবৈধভাবে বসবাসকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার ইঙ্গিত দেন বনমন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্য ।

Comments