Agune jhalase giyechila mukha plastika sarjari kariye papiyara Mr. Ferrane Aminula Skip to main content

Agune jhalase giyechila mukha plastika sarjari kariye papiyara Mr. Ferrane Aminula

আগুনে ঝলসে গিয়েছিল মুখ ,প্লাস্টিক সার্জারি করিয়ে পাপিয়ার শ্রী ফেরালেন আমিনুল

বিধায়ক আমিনুল হক লস্করের সঙ্গে পাপিয়া আকুড়া  


 Guwahati

১৭ জুন : আগুনে ঝলসে গিয়েছে প্রায় গােটা মুখটাই । পুড়ে গিয়েছে কান , অনেকখানি জায়গা সহ পেটের কিয়দংশ । বিকৃত হওয়া চেহারা নিয়েই বড় হয়েছে মেয়েটা । পড়াশােনােয় বেশ ভাল । মেধাবী বলেই নামডাক স্কুলে । ওর মন জুড়ে বিষাদ - একটা দুর্ঘটনা তাে জীবনটাই ধ্বংস করে দিয়েছে । কিন্তু তিন বছর হল নতুন করে বেঁচে থাকার রসদ পেয়েছে মেয়েটা , শিলকুড়ি চা - বাগানের পাপিয়া । আকুড়া । সােনাইয়ের বিধায়ক আমিনুল হক , লস্কর যেন পাপিয়ার জীবনে দেবদূত হয়ে এসেছেন । আর
কিছুদিনের মধ্যে প্লাস্টিক সার্জারির । সুবাদে ওর মুখ এবং শরীরের অন্য জায়গাগুলাের আগুনে পুড়ে কুঁচকে যাওয়া চামড়া ঠিক হয়ে যাবে । ফিরে , পাবে ও স্বাভাবিক মুখশ্রী । সেই সঙ্গে ফিরবে জীবনের আনন্দঘন রং । | কবে , কীভাবে পাপিয়ার জীবনে নেমে এসেছিল ভয়ঙ্কর সেই _ দুর্ভোগ । সােমবার দিসপুর এমএলএ । হােস্টেলে তার কোয়ার্টারে । পাপিয়াকে পাশে নিয়ে বিজেপি বিধায়ক আমিনুল বলেছেন , ২০১৬ সালে ভােটে জেতার পর তাঁর বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত দরগাকোণা পাবলিক স্কুলে তাঁকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল । সেই

মনে হয়েছিল জীবনটাই শেষ , MLA স্যারই পাল্টে দিলেন জীবন

অনুষ্ঠানে তাঁর গলায় মালা । পরিয়েছিল পাপিয়া । সেদিনই স্কুলের প্রধান শিক্ষককে ডেকে কী করে । পাপিয়া অগ্নিদগ্ধ হল জানতে চান আমিনুল । প্রধান শিক্ষক তাঁকে জানান , ২০০৭ সালে বয়স যখন ওর । দু ’ বছর তখন আগুন লেগেছিল । | পাপিয়াদের শিলকুড়ি চা - বাগানে । সেই আগুনেই মুখ থুবড়ে পড়ে | গিয়েছিল একরত্তি মেয়েটা । এ কথা শুনেই আমিনুল জানিয়ে দেন , | পাপিয়ার মুখের শ্রী ফেরানাের জন্য যত টাকা খরচ করার দরকার হয় । তিনি করবেন । এরপর পাপিয়াকে তিনি গুয়াহাটিতে নিয়ে এসে প্রখ্যাত প্লাস্টিক সার্জারিতে বিশেষজ্ঞ ডাঃ


পরেশ বরুয়াকে দেখান । পাপিয়ার পােড়া জায়গাগুলাে পরীক্ষা করে । ডাক্তার বরুয়া বলেছিলেন , আরেকটু বড় হলে এর অপারেশন সম্ভব হবে । তিন বছর বাদে ফের ডাঃ বরুয়ার কাছে পাপিয়াকে নিয়ে যান আমিনুল । এবার সব পরীক্ষা নিরীক্ষা করে তিনি জানান , প্লাস্টিক সার্জারি করা যাবে পাপিয়ার । সে মাস তিনেক । আগের কথা । এরপর ঠিক হয় এই জুনে হবে সেই অপারেশন । রবিবার । পাপিয়ার বিভিন্ন ধরনের রক্তের পরীক্ষা করা হয়েছে । ডাঃ বরুয়ার পরামর্শে মঙ্গলবার ওকে ভর্তি । করানাে হবে হাসপাতালে । আমিনুল বলেছেন ,

মােট ছয়টি অপারেশন


 হবে পাপিয়ার । অটল অমৃত  অভিযান প্রকল্পের অধীনে শল্য  চিকিৎসা , হাসপাতালের অন্যান্য পরিষেবা মিলবে নিঃখরচায় । তবে প্লাস্টিক সার্জারি অটল অমৃতে নেই । এর খরচটা বহন করবেন আমিনুল । তিনি জানান , দরগাকোণা পাব্লিক হাইস্কুলের দশম শ্রেণির ফাস্ট গার্ল পাপিয়া । আগামী বছর ও মাধ্যমিকে বসবে । আমিনুল চান এখন বছর চৌদ্দোর নতুন জীবন নিয়ে এই পরীক্ষায় বসুক । | অন্যদিকে , আমিনুলের এতটা সহৃদয়তায় আপ্লুত পাপিয়া বলেছেন , ওর সবসময় মনে হত ,

 Agune jhalase giyechila mukha papiya


জীবনটাই শেষ হয়ে গিয়েছে । কিন্তু তিন বছর আগে সােনাইয়ের নতুন বিধায়কের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানটাই পাল্টে দিয়েছে ওর জীবনকে । ‘ আমিনুল স্যারের । জন্যই নতুনভাবে জীবন ফিরে পাব । তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকব আমি । পাপিয়ার বাবা প্রদীপ আকুটাও বলেছেন , প্লাস্টিক সার্জারির মত ব্যয়বহুল | চিকিৎসা করিয়ে মেয়ের মুখমণ্ডলের শ্রী ফেরাবেন কল্পনাও করতে পারেন না । | সােনাইয়ের বিধায়কের জন্যই তাঁর মেয়ের মনের দুঃখ ঘুচে যাবে । আমিনুল বলছেন , মুখের বেশিরভাগ জায়গা পুড়ে গিয়েছে পাপিয়ার । দুই ঠোট বড় করে ফাক করতে পারে না বলে খেতেও কষ্ট হয় । জল ভাত কোনও রকমে খায় পাপিয়া । মাংস চিবােতে পারে না । তবে প্লাস্টিক সার্জারি হয়ে গেলে সবুসমস্যা দূর হবে । ‘ পাপিয়াকে প্রর্থম দেখেই খারাপ লেগেছিল । ওর চিকিৎসার সব খরচ বহন করার সিদ্ধান্তের পেছনে কোনও রাজনীতি নেই । মানুষ হিসেবে এটা আমার কর্তব্য বলেই মনে হয়েছিল ’ , মন্তব্য আমিনুলের ।

Comments