টেট শিক্ষকদের বিক্ষোভে । অচল শিলচর অফিসপাড়া । Skip to main content

টেট শিক্ষকদের বিক্ষোভে । অচল শিলচর অফিসপাড়া ।

টেট শিক্ষকদের বিক্ষোভে । অচল শিলচর অফিসপাড়া


চাকরি নিয়মিতকরণের দাবিতে অফিসপাড়ায় বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন টেট শিক্ষকরা । শিলচরে মঙ্গলবার 



Silchar , ১৮ জুন : অসম সর্বশিক্ষা অভিযান মিশন এবং স্টেটপুলের অধীনে রাজ্যে ঠিকাভিত্তিতে কর্মরত প্রায় ৪১ হাজার টেট শিক্ষকের চাকরি নিয়মিতকরণের দাবিতে মঙ্গলবার রাজ্যের অন্যান্য জেলার সঙ্গে । শিলচরেও বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হল সারা অসম প্রাথমিক টেট উত্তীর্ণ শিক্ষক । সমাজের পক্ষ থেকে । জেলাশাসকের কার্যালয়ের সামনে রাস্তা অবরােধ করে । প্রায় আড়াই ঘণ্টা বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয় । এতে অনেকটাই অচল হয়ে পড়ে । অফিসপাড়া । প্রচুর সংখ্যক টেট শিক্ষক এদিন দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট নাগাদ প্রথম এসে । জমায়েত হন ক্ষুদিরাম মূর্তির পাদদেশে । সেখান থেকে ১টা নাগাদ জেলাশাসকের কার্যালয়ের সামনে এসে রাস্তা অবরােধ করে শুরু করেন বিক্ষোভ । প্রদর্শন । রাস্তা অবরােধের দরুন বন্ধ হয়ে পড়ে যান চলাচল , রাস্তা ধরে চলতে দেওয়া হয়নি পথচারীদেরও । পরিস্থিতি বিবেচনা করে উপস্থিত পুলিশ কর্তারা ।


 সক্রিয় হয়ে উঠেন , যাতে করে দ্রুত স্মারকপত্র প্রদান পর্ব সারা হয়ে যায় । এই লক্ষ্যে বিক্ষোভকারীদের কয়েকজনকে কার্যালয়ের ভেতরে গিয়ে জেলাশাসকের হাতে স্মারকপত্র তুলে দেওয়ার জন্য অনুরােধ জানানাে হয় । তবে বিক্ষোভকারীরা এতে রাজি হননি , জেলাশাসককে নীচে নেমে এসে নিতে হবে স্মারকপত্র , এই দাবি জানান তাঁরা । এসব ডামাডােলে অনেকটা সময় অতিবাহিত হয়ে যায় , আর বাড়তে থাকে বিক্ষোভকারীদের স্লোগানবাজিও । এসবের মাঝে অতিরিক্ত জেলাশাসক এ আর মজুমদার গেটে এসে কথাবার্তা বললেও কাজ হয়নি । শেষপর্যন্ত আলাপ - আলােচনা শেষে বিক্ষোভকারীরা রাজি হন তাঁদের এক প্রতিনিধিদল ভেতরে গিয়ে জেলাশাসকের হাতে তুলে দেবেন স্মারকপত্র । বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ তাঁরা ভেতরে গিয়ে জেলাশাসকের হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে এক স্মারকপত্র । এরপর সরে যান বিক্ষোভকারীরা । জেলাশাসককে স্মারকপত্র তুলে দেওয়ার পর বিক্ষোভকারীদের নেতৃবৃন্দ সংবাদমাধ্যমকে জানান , দশ দিনের ভেতর তাঁদের দাবি পূরণ না হলে , আগামী ২৯ জুন তারা দিসপুর চলাে ’

আন্দোলনের ডাক দিতে বাধ্য হবেন ।

বিক্ষোভকারীদের কেউ কেউ , শিক্ষামন্ত্রী সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য  তাদের ড্রাইভারের । সঙ্গে তুলনা করেছেন বলে উল্লেখ করে তীব্র ক্ষোভ ব্যক্ত করেন । তাঁরা বলেন টেট শিক্ষকদের যদি ড্রাইভারদের লাইসেন্সের মত নবীকরণের প্রয়ােজন হয় , তবে সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্যেরও উচিত কয়েক বছর পর পর তাঁর আইনের ডিগ্রিটা । নবীকরণ করা । ।

Comments