কাগজকল চালুর দাবিতে জাগীরােডে বিক্ষোভমিছিল সিটু ও কৃষকসভার । Skip to main content

কাগজকল চালুর দাবিতে জাগীরােডে বিক্ষোভমিছিল সিটু ও কৃষকসভার ।

কাগজকল চালুর দাবিতে জাগীরােডে বিক্ষোভমিছিল সিটু ও কৃষকসভার ।



কাগজকল পুনরুজ্জীবিত করার দাবিতে নগাওয়ে শ্রমিক - কৃষকের এক মিছিল । রবিবার ।



নিজস্ব প্রতিবেদন , গুয়াহাটি , ২৬ মে : রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা । হিন্দুস্তান পেপার কর্পোরেশনের অধীন অসমের দুটি কাগজকল শীঘ্রই চালুর দাবিতে রবিবার অসমের নগাঁও জেলার জাগীরােডে শ্রমিক - কৃষকদের বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে সিআইটিইউ ও সারা ভারত কৃষক সভা । দুই সংগঠনের রাজ্য কমিটির যৌথ উদ্যোগে জাগীরােড পঞ্চায়েত ময়দানে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সহস্রাধিক কৃষক ও শ্রমজীবী মানুষ অংশ নেন । এতে সামিল হন কাগজকলের শ্রমিক - কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা । বিক্ষোভ শেষে এক মিছিল নগাঁও শহর পরিক্রমা করে মুখ্যমন্ত্রীর । উদ্দেশে জেলাশাসকের মাধ্যমে স্মারকপত্র প্রেরণ করা হয় । ‘ বিজেপি সরকারের শ্রমিক বিরােধী নীতি বাতিল করাে , রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলাে বেচে দেওয়া চলবে না , অসমের বন্ধ কাগজকল দুটি শীঘ্রই চালু করাে , শ্রমিক - কর্মচারীদের বকেয়া শীঘ্রই মিটিয়ে দিতে হবে ’ ইত্যাদি স্লোগানে

আকাশ - বাতাস মুখরিত করে তুলেন বিক্ষোভকারীরা । | বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সিআইটিইউ রাজ্য সম্পাদক তপন শর্মা বলেন , নরেন্দ্র মােদি সরকার প্রথমবার ক্ষমতায় এসেই এইচপিসিএল - এর অধীন রাজ্যের জাগীরােড ও কাছাড় কাগজকল বন্ধ করে দেয় । অথচ , নির্বাচনের সময় মােদিজির প্রতিশ্রুতি ছিল বিজেপি ক্ষমতায় এলে ছয় মাসের মধ্যে রুগ্ন কাগজকল দু ’ টি পুনরুজ্জীবিত করবেন । মােদি সরকার কাগজকল দু ’ টি শুধু বন্ধই করেনি , শ্রমিক - কর্মচারীদের মাইনে আড়াই বছর ধরে আটকে রেখেছেন । আন্দোলনের চাপে কর্মচারীদের মাইনা মিটিয়ে । দিতে ভারী শিল্পমন্ত্রক থেকে সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনের আগে ৯০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হলেও মাইনা মিটিয়ে না দিয়ে ওই টাকা অন্য খাতে খরচ করে দিয়েছে । বেতন না পেয়ে অর্ধাহারে , অনাহারে , বিনা চিকিৎসায় ইতিমধ্যে ৫৫ জন । শ্রমিক - কর্মচারীর মৃত্যু ঘটেছে । এরমধ্যেই পাঁচজন

আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছেন । কিন্তু । সরকারের কোনাে হেলদোল নেই । এতে বিজেপি সরকারের শ্রমিকবিরােধী নীতি স্পষ্ট হয়ে উঠছে কৃষকসভার রাজ্য সম্পাদক । টিকেন দাস বলেন , স্বদেশী স্লোগানধারী মােদি সরকার ‘ মেক ইন । ইন্ডিয়া ’ নামে চটকদার বিজ্ঞাপন । দিচ্ছে , অথচ বাস্তবে দেশের সম্পদ এক এক করে বেচে দিচ্ছে । অসমের কাগজকল ছাড়াও একাধিক তৈলকুপ , বিমানবন্দর বেচে দিয়েছে । আশ্চর্যজনক ঘটনা হলাে , বিগত নির্বাচনে কাগজকল পুনরুজ্জীবিত করার প্রতিশ্রুতি দিলেও এবারের নির্বাচনে এনিয়ে টু - শব্দটিও করেননি প্রধানমন্ত্রী মােদি । কাগজকল বন্ধ হওয়ায় শ্রমিক - কর্মচারীদের দুর্বিষহ অবস্থার সঙ্গে কাগজকলের কাঁচামাল বাঁশ উৎপাদনে যুক্ত কৃষকদের " করুণ অবস্থা । কাগজকল দুটি পুনরুজ্জীবিত না হওয়া পর্যন্ত | লালঝাণ্ডা আন্দোলনের ময়দানে । | থাকবে বলে হুঁশিয়ারি দেন টিকেন দাস । বিক্ষোভ কর্মসূচিতে এছাড়াও বক্তব্য রাখেন জেসিটিইউ - র যুগ্ম সম্পাদক ভবেন কলিতা , কাগজকল শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা আনন্দ বরদলৈ প্রমুখ ।

Comments